Header Ads

ভোট বাজারে ৭%, অমিল স্যানিটাইজার বাজারে হিট বামেরা

কলকাতা: বিশ্বজুড়ে করোনা ত্রাস। ইটালি, চিন, ইরান, স্পেন, ইংল্যান্ড ছাড়িয়ে মার্কিন মুলুক এবং ভারতে শুরু ভাইরাস হামলা। এই অবস্থায় শুরু হয়েছে রাজ্যে জীবাণু নাশকের কালোবাজারি। সরকারকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে দ্বিগুণ-ত্রিগুণ দামে বিক্রি হচ্ছে সানিটাইজার।

তবে দাম দিলেও মিলছে না জীবাণু নাশক। পরিস্থিতি বিচার করে করোনা আক্রান্ত রাজ্যবাসীর হাতে স্য়ানিটাইজার তুলে দিতে এগিয়ে এসেছে বাম সংগঠনগুলি। ফ্রন্টের সব শরিক দলগুলির বিভিন্ন গণ সংগঠন ও বড় শরিক সিপিআইএমের ছাত্র-যুব সংগঠনের কর্মীরা নেমে পড়েছেন স্য়ানিটাইজার বানাতে।

সিপিআইএমের সবকটি জেলা কমিটি ও অন্যান্য শাখা সংগঠন বিশেষত এসএফআই, ডিওয়াইএফআই এই কর্ম প্রচেষ্টায় সামিল। বিভিন্ন বাম গণ সংগঠনের সোশাল সাইটে প্রতিদিনই তুলে ধরা হচ্ছে স্য়ানিটাইজার বানানো, বিলির ছবি।

সংগঠনের নেতৃত্ব ও কর্মীরা জানাচ্ছেন বিপদের মুখে দেশবাসী। কালোবাজারীর ভয়ঙ্কর চেহারা ফুটে উঠছে। এই স্য়ানিটাইজার তৈরি করে অন্তত সাধারণ মানুষের মাঝে ছড়ানো হবে। তাতে অনেকে করোনা আক্রমণ থেকে রেহাই পাবেন।

এমিনিতেই বাম প্রভাবিত বিজ্ঞান মঞ্চ আগে থেকেই করোনা সংক্রমণ রুখতে গিয়ে গো মুত্র খাওয়ানোর বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলছে। আর চিকিৎসকরা এই গো মুত্র পান করে করোনা দূর হবে না বলেই জানাচ্ছেন। অভিযোগ, কুসংস্কার কে হাতিয়ার করে বিজেপি ও তার সমমনস্ক দলের কিছু নেতা গো মুত্রের প্রচার চালানো, সেটা খাওয়াতে উৎসাহ দিচ্ছেন।

এই অবস্থায় করোনা রুখতে বিজ্ঞানসম্মত উপায়ে পরিচ্ছন্নতার পাঠ দিচ্ছেন বিভিন্ন বাম মনস্ক গণ সংগঠনের কর্মীরাও। উত্তরে আলিপুরদুয়ার থেকে দক্ষিণে গোসাবা অর্থাৎ রাজ্যের সর্বত্র চলছে গো মুত্র পান বিরোধী জনমত গঠন ও নিজেদের তৈরি স্য়ানিটাইজার বিলি।

রাজ্যের প্রাক্তন সেচ মন্ত্রী তথা আরএসপি প্রাক্তন বিধায়ক সুভাষ নস্কর করোনা মোকাবিলা ফান্ডে পেনশনের অর্থ দানের বার্তা দিয়েছেন। দলটির বিভিন্ন সোশাল সাইটে সেই বার্তা ছড়িয়েছে। বামপন্থী ছাড়া অন্য কোনও দলের এমন উদ্যোগ নেই, দাবি বাম নেতা কর্মীদের।

করোনা মেকাবিলা নিয়ে বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকা সর্বদলীয় বৈঠকে সিপিআইএমের রাজ্য সম্পাদক তথা প্রাক্তন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা, সূর্যকান্ত মিশ্র স্য়ানিটাইজার সহ সব অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের কালোবাজারির প্রসঙ্গ তোলেন। তবে তৃণমূল সরকারের তরফে জানানো হয়, প্রশাসনিক স্তরে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এদিকে বাম শাসিত একমাত্র রাজ্য কেরলে করোনা সংক্রমণ বড় চেহারা নিয়েছে। সরকারের পাশাপাশি সিপিএমের শাখা সংগঠনগুলি সেই পরিস্থিতি মোকাবিলায় শক্ত ভূমিকা নিয়েছে। এমনই দাবি দলের কেন্দ্রীয় কমিটির।

গত লোকসভা নির্বাচনে বাম দলগুলির ভোট প্রাপ্তির হার শোচনীয়ভাবে কমে যায়। কেবল দক্ষিণ ভারত থেকে ৫ জন সাংসদ বিজয়ী হন। আর পশ্চিমবঙ্গ ও ত্রিপুরার মতো রাজ্যে সরকার আগেই হারিয়ে লোকসভায় একটি আসনও পায়নি বামেরা। বাংলাতেই ৭ শতাংশ ভোট পায় তারা।

রাজনৈতিক মহলে তারপর প্রশ্ন উঠেছে বাংলায় ৩৪ বছর, ত্রিপুরায় ২৫ বছর ক্ষমতায় থাকার পরেও সিপিআইএম অস্তিত্ব সংকটের মুখে। মনে করা হচ্ছে করোনা হামলার মুখে স্য়ানিটাইজার বানিয়ে নতুন লড়াই তাদের।

The post ভোট বাজারে ৭%, অমিল স্যানিটাইজার বাজারে হিট বামেরা appeared first on Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper.



from Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper
Source Url: https://www.kolkata24x7.com/lefts-popular-when-sanitizer-not-in-market/

No comments

Powered by Blogger.