Header Ads

সোশ্যাল ডিসটেন্সিং-এ সংক্রমণের হার কমবে ৬২ শতাংশ, বিশদ গবেষণা বিশেষজ্ঞদের

নয়াদিল্লি: সোশ্যাল ডিসটেন্সিং একমাত্র সমাধান। সামাজিক জমায়েত থেকে নিজেকে আলাদা করে রাখলে তবেই ভারতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের পরিমাণ প্রায় ৬২ শতাংশ কমানো যাবে। এমনই দাবি করলেন ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চের (আইসিএমআর) গবেষকরা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হু প্রথম থেকেই সোশ্যাল ডিসটেন্সিং বা সামাজিক ভাবে নিজেকে আইসোলেট করার উপরে গুরুত্ব দিয়ে এসেছে। প্রথম থেকেই মানুষকে নিজেদের বাড়িতে আলাদা রাখার পরামর্শ দিয়েছে হু। বিশেষজ্ঞরা বার বার জানিয়েছেন, নভেল করোনা ভাইরাস রুখতে সবচেয়ে বড় সমাধানই হল সোশ্যাল ডিসটেন্সিং। এর দ্বিতীয় কোনও দাওয়াই নেই।

সম্প্রতি একটি গবেষণা করেন আইসিএমআর-এর বিশেষজ্ঞরা। সেখানে তাঁরা বলছেন কোয়ারেন্টাইন প্রক্রিয়া ও সোশ্যাল ডিসটেন্সিং-কে গুরুত্ব দিয়ে পালন করলে করোনার সংক্রমণ ভারতে ৬২ শতাংশ কম হবে। যাঁরা ইতিমধ্যে কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত বা যাঁদের মধ্যে এই রোগের উপসর্গগুলি দেখা যাচ্ছে তাঁদের থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু যেহেতু এই রোগে কেউ আক্রান্ত কি না তা সহজে বোঝা যায় না, তাই এই সোশ্যাল ডিসটেন্সিং প্রয়োজনীয় বলে জানিয়েছেন তাঁরা।

কোভিড ১৯-কে গ্লোবাল প্যানডেমিক ঘোষণা করার আগের সপ্তাহে এই গবেষণা করা হয়। ভারতে যাতে এই রোগ ছড়িয়ে না পড়ে দ্রুত গতিতে তার জন্যই আগে থেকে সাবধান করা হয়। এই গবেষণার কেন্দ্রে ভারতের চারটি শহর দিল্লি, মুম্বই, বেঙ্গালুরু ও কলকাতাকে বেছে নেওয়া হয়। কারণ এই চার শহরে আন্তর্জাতির অ্যারাইভাল বেশি হয়।

এই গবেষণা থেকেই দেখা যায়, একজন করোনা আক্রান্তের থেকে গড়ে ১.৫ থেকে ৪.৯ মানুষ আক্রান্ত হতে পারেন। এখান থেকেই গবেষকরা দুটি অবস্থার বর্ণনা করেন। একটি হল আশাবাদী বা সবচেয়ে কম বিপজ্জনক অবস্থা (যখন গড়ে ১.৫ জন আক্রান্ত) আর একটি হল নিরাশাবাদী বা সবচেয়ে বেশি বিপজ্জনক অবস্থা (যখন গড়ে ৪.৯ জন আক্রান্ত)।

বিশেষজ্ঞদের মতে, শুধু আক্রান্তরা নন। যাঁদের মধ্যে উপসর্গ দেখা যাচ্ছে তাঁদের ৫০ শতাংশকে যদি কোয়ারেন্টাইনে রাখা যায় এবং স্ক্রিনিং বা পরীক্ষা করা যায় তা হলেই ভারতে ৬২ শতাংশ কম হবে এই করোনার সংক্রমণ। একেই আশাবাদী অবস্থা বলছেন বিশেষজ্ঞরা। মহামারীর দাপট কমবে এই সোশ্যাল ডিসটেন্সিং-এর মাধ্যমে।

অন্যদিকে নিরাশাবাদী বা সবচেয়ে বিপজ্জনক অবস্থা যেখানে ভারতের পরিণতি সাংঘাতিক হতে পারে সেখানে মাত্র ২ শতাংশ সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনা যাবে। এই গবেষণা থেকে বিশেষজ্ঞরা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন যে করোনা ভাইরাসের চিকিৎসার আগেও যেটা দরকার এবং কার্যকরী তা হল আইসোলেশন বা ঘরবন্দি থাকা। এছাড়াও চিকিৎসকরা বার বার শরীরে রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা বাড়াতে বলছেন প্রতিনিয়ত এই রোগের সঙ্গে লড়াই করার জন্য।

The post সোশ্যাল ডিসটেন্সিং-এ সংক্রমণের হার কমবে ৬২ শতাংশ, বিশদ গবেষণা বিশেষজ্ঞদের appeared first on Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper.



from Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper
Source Url: https://www.kolkata24x7.com/social-distancing-can-reduce-62-cases-in-india/

No comments

Powered by Blogger.