Header Ads

কাঁপুনি ধরাচ্ছে মারণ করোনা, উপসর্গ নিয়ে কলকাতার হাসপাতালে আরও ৩

কলকাতা: ক্রমেই আতঙ্ক বাড়াচ্ছে মারণ করোনা৷ এবার দুই ডাক্তারি পড়ুয়ার শরীরে করোনার উপসর্গ৷ তড়িঘড়ি ভর্তি করা হয় নীলরতন সরকার হাসপাতালে৷ বুধবার রাতে তাঁদের শীরের উপসর্গ দেখে পরীক্ষা করতে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

তারপরই এনআরএস-এ আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভরতি করে নেওয়া হয় তাঁদের। দুই ডাক্তারি পড়ুয়ার লালারসের নমুনা নাইসেডে পরীক্ষা করতে পাঠানো হয়েছে। ওই দু’জন ছাড়াও আরও এক বিদেশ ফেরত যুবককে আর জি কর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভরতি করা হয়েছে।

এই মুহূর্তে বেলেঘাটা আইডিতে করোনার উপসর্গ নিয়ে ২৫ জনকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত কলকাতায় করোনা আক্রান্ত সন্দেহে আইসোলেশনে রয়েছেন মোট ২৭ জন। মঙ্গলবারই রাজ্যে প্রথম করোনা আক্রান্তের হদিশ মেলে৷ রাজ্যের এক আমলার ছেলে লন্ডন থেকে করোনার উপসর্গ নিয়ে ফেরেন। রোগ গোপন করে কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে বেড়ান ওই তরুণ৷ এমনকী মায়ের দফতর নবান্নেও গিয়েছিলেন তিনি৷

পরে ওই তরুণকে বেলেঘাটা আইডিতে ভরতি করা হয়। তরুণের মা-বাবা ও গাড়িচালকদেরও করোনা পরীক্ষা করা হয়৷ যদিও তাঁদের কারও শরীরে করোনা ভাইরাস মেলেনি৷ ওই তরুণকেই বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিতসা করা হচ্ছে৷ তবে তরুণের পরিবারের সদস্যদের রাজারহাট কোয়ারেন্টাইন আগামী ১৪ দিন রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এদিকে, নতুন করে যে দুই ডাক্তারি পড়ুয়ার করোনার উপসর্গ দেখা গিয়েছে তাঁদের একজন কেরলের বাসিন্দা। বুধবার রাতে তাঁদের শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা যায়। তাঁরা আর আহমেদ ডেন্টাল কলেজের ছাত্রী৷ করোনার উপসর্গ দেখা দিতেই ডেন্টাল কলেজের তরফে বেলেঘাটা আইডিতে যোগাযোগ করা হয়৷

আইডিতে বেডের সমস্যা থাকায় দুই ছাত্রীকে ভরতি নেওয়া যাবে না জানালে পরে তাঁদের নীলরতন সরকার হাসপাতালে ভরতি করা হয়৷ বুধবারই বিদেশ থেকে ফেরা আরও এক ব্যক্তি আর জি করে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন৷

The post কাঁপুনি ধরাচ্ছে মারণ করোনা, উপসর্গ নিয়ে কলকাতার হাসপাতালে আরও ৩ appeared first on Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper.



from Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper
Source Url: https://www.kolkata24x7.com/more-three-person-from-kolkata-are-admit-in-isolation-ward/

No comments

Powered by Blogger.