চিনা সীমান্তে শক্তি বাড়াচ্ছে ভারত, উত্তরাখণ্ডে তৈরি হচ্ছে নতুন টানেল

নয়াদিল্লি : কোনও দাদাগিরি বরদাস্ত নয়। চিনের মুখে ঝামা ঘষে এই বার্তাই দিতে চাইল ভারত। চিনা সীমান্ত বরাবর উত্তরাখণ্ডে নতুন টানেল তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল ঘেঁষে কাজ শুরু করেছে নয়াদিল্লি। স্ট্র্যাটেজিক টানেল তৈরির কাজ শুরু করায় কড়া বার্তা দেওয়া গেল বলেই মনে করছে নয়াদিল্লি। এই টানেল দিয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনী আরও দ্রুত সীমান্তে পৌঁছতে পারবে বলে জানা গিয়েছে।

মঙ্গলবার বিআরও অর্থাৎ বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন জানিয়েছে কূটনৈতিক ক্ষেত্রে এই কাজ শুরু করাটা বড়সড় সাফল্য। শুধু সেনাবাহিনীই নয়, এই টানেল ব্যবহার করতে পারবেন সাধারণ মানুষও। বিশেষত ঘনজনবসতিপূর্ণ চাম্বা জেলার মানুষের যাতায়াতের ক্ষেত্রে বেশ সুবিধা এনে দেবে টানেলটি বলে জানানো হয়েছে।

এদিকে, নতুন তৈরি হতে চলা টানেলটি মূলত চাম্বা টানেলের অতিরিক্ত অংশ, যা সীমান্তে সেনাবাহিনীর কনভয় দ্রুত পৌঁছে দিতে সাহায্য করবে। চলতি বছরের অক্টোবর মাসে টানেলের রাজ শেষ হবে। সেনা সূত্রে খবর প্রস্তাবিত সময়ের তিন মাস আগেই কাজ শেষ করা হবে বলে জানা গিয়েছে। ঋষিকেশ-ধারাসু রোডের ওপর নির্মিত টানেলটি ১২ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প।

চার ধাম প্রকল্পের অন্তর্গত এই টানেল গুরুত্বপূর্ণ যোগসূত্র তৈরি করবে যমুনোত্রি-গঙ্গোত্রি-কেদারনাথ ও বদ্রীনাথের মধ্যে। ৮৮৯ কিমি লম্বা জাতীয় সড়কের ওপর বানানো হলে এটি। একই ভাবে সেনাও খুব দ্রুত এই টানেল ব্যবহার করে পৌঁছে যেতে পারবে নেলং ভ্যালির চিনা সীমান্তের ভারতীয় প্রান্তে। ধারাসু থেকে ভাইরংঘাঁটি হয়ে নেলং ভ্যালি যাওয়া যাবে এই রাস্তায়।

তবে টানেল তৈরি করার জন্য জমি অধিগ্রহণ একটা বড় সমস্যা তৈরি করেছিল। এছাড়াও সমস্যা ছিল আবহাওয়া ও জলের। তবে আপাতত সেই সমস্যা কাটিয়ে ওঠা গিয়েছে। বিআরও এই কাজ শুরু করেছিল গত বছর জানুয়ারি মাসে। তবে টানেলের দক্ষিণ অংশের কাজ বাকি ছিল জমি অধিগ্রহণের জন্য। নির্মাণ কাজ বন্ধ ছিল করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার জন্যও।

গত কয়েকদিন ধরে খবরের শিরোনামে ভারত-চিন সংঘাত। প্রায় এক মাস হতে চলল সীমান্তের কাছে চোখে চোখ রেখে দাঁড়িয়ে আছে ভারত এবং চিনের সেনাবাহিনী। বৃহস্পতিবার বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, কূটনৈতিক স্তরে দিল্লি ও বেজিংয়ের মধ্যে মধ্যে কথাবার্তা চলছে। শান্তিপূর্ণভাবে সবকিছু মিটিয়ে ফেলার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিন ভারত-চিন ইস্যু নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন অনুরাগ শ্রীবাস্তব। তিনি জানিয়েছেন ভারত এবং চিনের মধ্যে সামরিক স্তরে এবং কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা চলছে। সীমান্তে শান্তি বজায় রাখতে দুই দেশের মধ্যে অনেক প্রোটোকল রয়েছে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি। দুই দেশের মধ্যে অনেক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল বলেও উল্লেখ করেন।

তিনি জানিয়েছেন ভারতের সেনাবাহিনী খুবই দায়িত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছে। একদিকে সমস্ত প্রোটোকল মেনে চলার পাশাপাশি ভারতকে রক্ষা করার দায়িত্ব পালন করছে সেনাবাহিনী।

The post চিনা সীমান্তে শক্তি বাড়াচ্ছে ভারত, উত্তরাখণ্ডে তৈরি হচ্ছে নতুন টানেল appeared first on Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper.



from Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper
Source Url: https://www.kolkata24x7.com/india-beefing-up-infrastructure-along-china-border-new-strategic-tunnel-being-constructed-in-uttarakhand/

Post a Comment

0 Comments