মুম্বই : ২০০৮ সালের সেই ভয়াবহ স্মৃতি। এখনও ক্ষত শুকায়নি ভারতের। সেই স্মৃতি উস্কে দিয়ে নতুন করে হামলার ছক কষছে পাকিস্তান। এমনই তথ্য দিলেন গোয়েন্দারা। গোপন সূত্রে পাওয়া খবর জানাচ্ছে ফের হামলা হতে পারে দেশের বাণিজ্য নগরী মুম্বইয়ে।

পাকিস্তানের নিশানায় রয়েছে কোলাবার তাজ মহল প্যালেস হোটেল, বান্দ্রার তাজ ল্যান্ডস এন্ড। মঙ্গলবার রাতেই এই হুমকি ফোন আসে। নিজেকে লস্কর এ তইবার জঙ্গি বলে পরিচয় দেওয়া এক ব্যক্তি ফোন করে এই দুটি বিলাসবহুল হোটেল বিস্ফোরণে উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়।

হুমকি ফোনটি এসেছিল পাকিস্তান থেকে। জানাচ্ছেন তদন্তকারী অফিসাররা। প্রথম ফোনটি আসে রাত ১২.৩০ মিনিটে। তাজ মহল প্যালেস হোটেলের কর্মীরা সেই ফোন ধরেন। একটি পাকিস্তানি নম্বর থেকে এই ফোন করা হয়। কলার নিজেকে লস্করের সক্রিয় সদস্য বলে পরিচয় দেয়।

এই হোটেলে ফের হামলা চালাবে লস্কর, বলে হুমকি দেয় সে। পুলিশ জানায় বারবার সে ২০০৮ সালের নভেম্বর মাসের হামলার কথা উল্লেখ করে। যেভাবে তখন বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছিল, সেই কথা জানাতে থাকে সে।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর মুম্বই হামলায় মৃত্যু হয় ১৬৬ জনের৷ মুম্বই হামলায় জড়িত সন্দেহে লস্কর-ই-তোইবা কমান্ডার জাকিউর রহমান লাকভি সহ সাতজনকে গ্রেফতার করে পাক পুলিশ৷ তবে এতগুলো বছরেরও মামলার সমাধান হয়নি৷ ঘটনাটি ঘটেছিল ছত্রপতি শিবাজি টারমিনাস রেলওয়ে স্টেশনে, কামা হাসপাতাল, নারিম্যান হাউস বিসনেস এন্ড রেসিডেনশিয়্যাল কমপ্লেক্স, লিওপোল্ড ক্যাফে এবং তাজ হোটেল এবং ওবেরয় ত্রিডেন্ট হোটেলে।

এফএটিএফের তরফে পাকিস্তানকে সন্ত্রাসবাদে আর্থিক মদত নিয়ে ‘গ্রে তালিকা’য় রাখবার পরই ইমরান প্রশাসন সন্ত্রাসবাদী নেতা হাফিজ সইদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চলেছে। ৭ ডিসেম্বর তারা হাফিজকে আদালতে সাজা শোনানোর কথা থাকলেও তা শনিবার ফের ১১ ডিসেম্বর পিছিয়ে দেওয়া হয়।

পাঞ্জাবে ২৩ টি এফআইআর দায়ের করা হয় হাফিজের বিরুদ্ধে। আর এই সব কটি অভিযোগই রয়েছে সন্ত্রাসে মদত দেওয়া নিয়ে। সেই অভিযোগ নিয়ে হাফিজকে আটকও করা হয়।

ভারত সহ বিভিন্ন দেশ একধিকবার পাকিস্তানকে সন্ত্রাসে লিপ্ত দলগুলির বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিতে বললেও কোনও কাজ হয়নি। আরব সাগরের তীরে সেই অভিশপ্ত রাতে মুম্বই দেখেছিল নারকীয় রক্তলীলা। মুম্বইয়ের গর্ব তাজ হোটেল থেকে শুরু করে নারিমান পয়েন্ট, একের পর এক জায়গা গুলিতে ঝাঁঝরা করে দিয়েছিল পাকিস্তানি জঙ্গিরা। জলপথে মুম্বইয়ের বুকে ঢুকে এমন নৃশংস হামলার নেপথ্যে ছিল পাকিস্তানি জঙ্গিনেতা হাফিজ সইদ। যাকে পরবর্তীকালে বিশ্বসন্ত্রাসবাদীর তকমা দিয়েছে রাষ্ট্রসংঘ।

The post উড়িয়ে দেওয়া হবে তাজ, গভীর রাতে ফোন পাকিস্তানের নম্বর থেকে appeared first on Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper.



from Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper
Source Url: https://www.kolkata24x7.com/taj-mahal-palace-hotel-colaba-taj-lands-end-receive-threat-call-from-pakistan-security-beefed-up/